বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ১২:১৯ পূর্বাহ্ন

বছরের পর বছর আমরা আমাদের অধিকার থেকে বঞ্চিত ছিলাম: এমপি বাবু

  • আপডেট : রবিবার, ৬ মার্চ, ২০২২
  • ৮৬৭ পড়া হয়েছে

বিডি২৪নিউজ.নেট: নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের আয়োজনে স্বাধীণতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে মুক্তিযোদ্ধা সমাবেশ ও আলোচনা সভায় প্রধান আলোচক এর বক্তব্যে নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের সাংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবু বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর ডাকে সারা দিয়ে মুক্তিযোদ্ধারা পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীদের উপর ঝাপিয়ে পরেছিলেন। আজ আমরা সেই মুক্তিযোদ্ধাদের দেখলে সম্মান করি। মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতা প্রদানসহ নানান সুবিধা দিয়েছে বঙ্গবন্ধু কন্যা মানননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, যা অন্য কোন সরকার করেনি।

শনিবার (৫ মার্চ) বিকেলে উক্ত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান।

নজরুল ইসলাম বাবু বলেন, দীর্ঘ ৫০ বছর খালেদা জিয়ার শাষন, হোসাইন মোহাম্মদ এরশাদের শাষন, জিয়াউর রহমানের শাষন আমরা দেখেছি। আমরা দেখেছি যে তারা বাংলার মানুষদের জন্য কি করেছে। আমাদের নারায়ণগঞ্জে আমরা কিছুই কিন্তু পাইনি। বছরের পর বছর আমরা আমাদের অধিকার থেকে বঞ্চিত ছিলাম। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসার পর আমরা সব পেয়েছি যা আমাদের দরকার ছিলো। আমরা করতে পেরেছি যা আমরা নারায়ণগঞ্জের মানুষের জন্য করতে চেয়েছি।

নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য একেএম শামীম ওসমান বলেছেন, আমি দায়িত্ব নিয়ে বলেছি চিটাগাংরোডের মোড়ে কিছুদিন পূর্বে ঘটনা ছিল হেফাজতের আন্দোলন। কিন্তু হেফাজত ঘটনা ঘটায়নি। মার্কেটের ভিতর দিয়ে গিয়ে যারা ২৫টা বাস জালিয়ে দেয়, যারা ২০০১ সালের পর আমাদের ৬ জন মানুষকে হত্যা করেছিল, তারা ঘুরে বেড়ায় আবার বড় বড় কথাও বলে। তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয় না কেন? হেফাজত আন্দোলন করেছে অন্য জায়গায়, সেটার (গাড়ি পোড়া) সাথে হেফাজত জড়িত ছিল না। তবে বলে রাখছি, নারায়ণগঞ্জের রাস্তায় অন্য কোন শক্তিকে মাঠে নামতে দিবো না। আমাদের সবাইকে এক হওয়ার সময় এসেছে। অন্তত যারা হাইব্রীড না মোস্তাকের বংশধর না। মুখে মুখে অনেক কথা বলা যাবে। জয় বাংলা বলে জীবন দিয়েই দেয়া যাবে। কিন্তু সময়মতো রাস্তায় নামবে কিনা সেটা দেখার বিষয় আছে। মানুষ কিন্তু কেউ স্টুপিট না। আমাদের জেনারেশন হৃদয়ের থেকে রাজনীতি করেছে। আজকের জেনারেশন আবেগ দিয়েই না মেধা দিয়ে রাজনীতি করেন।

শামীম ওসমান আরও বলেন, মানুষ দেখতে চায় নিরাপত্তা ও দূর্নীতিমুক্ত বাংলাদেশ’। আন্তর্জাতিকভাবে যখন আমাদের দেশকে ছোট করে তখন আমাদের দেশের কিছু মানুষ হাতে তালি দেয়, আমার কাছে তখন লজ্জা লাগে। আমরা ব্রিটিশদের গোলামি করেছি, এখনও আমরা সেই মনোভাব থেকে বের হতে পারি নাই। সামনের সময়টা বঙ্গবন্ধুর সৈনিকদের জন্য স্বাধীনতার পক্ষের শক্তির জন্য কঠিন আসছে। আজকে দেখেন করোনায় ক্ষতবিক্ষত অনেক দেশ। শেখ হাসিনা শুধু আওয়ামী লীগের সম্পদ না, দেশবাসীর সম্পদ।

জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন- অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক শামীম বেপারী, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) আমির খসরু প্রমুখ।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর
স্বত্ব © ২০২৪ সাপ্তাহিক আড়াইহাজার
Theme Customized By BreakingNews