বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ১২:২৩ পূর্বাহ্ন

আড়াইহাজারে বিএনপি-পুলিশ সংঘর্ষ, গুলিবিদ্ধ সহ আহত ৬০

  • আপডেট : শনিবার, ১১ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩
  • ৮৪৭ পড়া হয়েছে

স্টাফ রির্পোটার: নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলায় পাচরূখি বাজার এলাকার ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে বিএনপির নেতাকর্মীদের সাথে পুলিশের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় বিএনপির ৬০-৭০জন নেতাকর্মী গুলিবিদ্ধ সহ আহত হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় আহতদের নাম পরিচয় এখনও পাওয়া যায়নি।

শনিবার (১১ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১২টার দিকে আড়াইহাজারের সাতগ্রাম ইউনিয়নের পাচরূখি বাজার এলাকার ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে এ ঘটনা ঘটে।

এ বিষয়ে বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক নজরুল ইসলাম আজাদ বলেন, কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে আড়াইহাজারের প্রতিটি ইউনিয়নে পদযাত্রা কর্মসূচির আয়োজন করি। এরই ধারাবাহিতকায় আমরা সাতগ্রাম ইউনিয়নে পদযাত্রা নিয়ে বের হলে পুলিশ আমাদের বাঁধা দেয়, আর এক পর্যায়ে সংঘর্ষের সৃষ্টি হয়। পুলিশও রাবার বুলেট ছুড়ে। এতে আমাদের ৬০-৭০জন নেতাকর্মী গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হয়। এসময় পুলিশের ধাক্কা-ধাক্কিতে আমিও আহত হই।

আড়াইহাজার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আজিজুল হক হাওলাদার বলেন, বিএনপির একটি পদযাত্রা কর্মসূচি ছিলো। তারা ওই কর্মসূচি করার সময় ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক বন্ধ করে গাড়ি ভাংচুর করার চেষ্টা করে। প্রথমে ওনাদের ভালো ভাবে মহাসড়ক থেকে সরে যেতে বলার পরেও তারা রাজি না হওয়ায় আমরা তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেই। যেহেতু মহাসড়ক বন্ধ করে সাধারণ জনগনের চলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টি করেছে তাই আমরা একটি মামলা করবো।

আড়াইহাজার উপজেলা বিএনপির আহব্বায়ক কমিটির সভাপতি ইউসুফ আলী ভূইয়া, তেল, গ্যাস, বিদ্যুতের দাম কমানোর দাবীতে এবং তত্বাবধক সরকারের অধিনে নিবাচর্ন করার দাবীতে আমাদের এই পদযাত্রা। হাসিনা সরকারের পদত্যাগ না করা পর্যন্ত আমাদের এই কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে।

আড়াইহাজার উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মো. জুয়েল বলেন, পুলিশের গুলিতে আমাদের বিএনপির ৬০ থেকে ৭০ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে অনেকে গাউসিয়া হাসপাতাল এবং ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়েছে।

এ ব্যাপারে নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক মনিরুল ইসলাম রবি জানান, আমাদের নেতাকর্মীরা শান্তিপূর্ন পদযাত্রা করে মহাসড়কে উঠা মাত্রই ছাত্রলীগ, যুবলীগের গুন্ডারা ও পুলিশ তাদের উপর হামলা করে। এসময় নজরুল ইসলাম আজাদসহ অর্ধশতাধীক নেতাকর্মি আহত হয়। আওয়ামী লীগ ও পুলিশ পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী এই হামলা চালিয়েছে। আমি এই ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

আপনার সামাজিক মিডিয়া এই পোস্ট শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর
স্বত্ব © ২০২৪ সাপ্তাহিক আড়াইহাজার
Theme Customized By BreakingNews